কন্যাশ্রী টাকা না দেওয়ায় বিয়ের এক বছরের মধ্যে স্ত্রীকে খুন করল স্বামী

0
78

নিজস্ব প্রতিনিধি, দক্ষিণ২৪ পরগনা ঃ  কন্যাশ্রী টাকা নেওয়ার জন্যে স্ত্রী কে বারেবারে চাপ দিত এবং শারীরিক ও মানসিক ভাবে অত্যাচার করত স্বামী । আর সেই টাকা না দেওয়ায় স্ত্রী কে শ্বাসরোধ করে খুন করে স্বামী । মৃতার নাম রাফিজা বিবি(১৮) । ঘটনাটি ঘটেছে , দঃ ২৪ পরগনা জীবনতলা থানার ঘুটিয়ারী শরীফ এলাকায় । পরিবার সূত্রে খবর ভালোবাসা করে ঘুটিয়ারী শরীফ শ্রীনগর জমাদার পাড়ার বাসিন্দা ফজলুর জমাদার কে বিয়ে করে রাফিজা । আর সেই বিয়ে বেশি দিন স্থায়ী হল না । অর্থের কাছে হার মানলো রাফিজার ভালোবাসা । দুজনার সংসারে অশান্তি ছিল নিত্য দিনের সঙ্গী । রাফিজা কে বাপের থেকে টাকা আনার জন্যে বারবার অত্যাচার করত স্বামী ফজলুর । আর সেই টাকা না আনলে রাফিজা কে মারধর করত । নিজের টাকা দিয়ে তাদের সংসারের অশান্তি মেটাতো রাফিজার দাদু । সেই টাকায় মন পোষেনি ফজলুরের । তাঁর নজর যায় রাফিজার কন্যাশ্রী পাওয়া টাকার উপর । আর সেই টাকা নেওয়ার জন্যে বারেবারে অত্যাচার করত ফজলুর । সেই টাকা দিতে অস্বীকার করায় রাফিজার উপর শারীরিক ও মানসিক ভাবে অত্যাচার করত ফজলুর এবং স্ত্রীকে মারার ফন্দি আঁটে সে । আর সে কারনে ফাঁকা জায়গায় ঘরভাড়া নেয় ফজলুর । এরপর রাতের অন্ধকারে রাফিজাকে মেরে শ্বাসরোধ করে খুন করে স্বামী ফজলুর । তারপর সেই খুনের অপরাধ ঢাকতে স্ত্রীর নামে জীবনতলা থানায় একটি নিখোঁজ লিখিত অভিযোগ দায়ের করে স্বামী ফজলুর । আর তার কথায় অসঙ্গতি মেলায় তাকে গ্রেফতার করে জীবনতলা থানার পুলিশ । এরপর খুনের কথা স্বীকার করে সে । মৃতদেহ টি উদ্ধার করে নিয়ে আশে ঘুটিয়ারী শরীফ ফাঁড়ির পুলিশ । ক্যানিং বিডিও ও জীবনতলা থানার পুলিশের উপস্থিতে মৃত দেহটি শনাক্ত করে পরিবার । এরপর দেহটি ময়নাতদন্তের জন্যে নিয়ে যায় জীবনতলা থানার পুলিশ ।

LEAVE A REPLY