বন্যায় বিভিন্ন আর্থিক ত্রাণে সহায়তার আর্জি নেপালের

খোঁজ-খবর,ওয়েবডেস্কঃ- পুরোপুরি না থামলেও নেপালে বহু জায়গায় বৃষ্টির তীব্রতা অনেকটা কমেছে। বিস্তীর্ণ এলাকা জলের নীচে। এই পরিস্থিতিতে জলবাহিত সংক্রমণ যাতে না-ছড়িয়ে পড়ে, সে জন্য বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থার কাছে সহায়তার আর্জি জানিয়েছে নেপাল।
প্রশাসন সূত্রের খবর, প্রবল বৃষ্টিতে ভাসছে নেপালের ২৫টি জেলা। এখনও পর্যন্ত প্রাণ হারিয়েছেন ৬৭ জন। দুর্যোগের কবলে পড়েছে প্রায় ১০,৩৮৫টি পরিবার। দুর্যোগের ফলে ক্ষয়ক্ষতির পর্যালোচনা করতে গত কাল জরুরি বৈঠকে বসেন নেপালের প্রশাসনিক আধিকারিকেরা। উপস্থিত ছিলেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু), ইউনিসেফ, ইউএনএফপিএ-সহ বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক সংস্থার নেপালের প্রতিনিধিরাও। টানা বৃষ্টির জেরে জলবাহিত সংক্রমণ রোধের পাশাপাশি, বাসিন্দাদের স্বাস্থ্য পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া নিয়ে আলোচনা হয় বৈঠকে।বন্যা এবং ধস কবলিত জেলাগুলিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে ইতিমধ্যেই জরুরি পরিষেবা কেন্দ্র খোলা হয়েছে। তবে তা পর্যাপ্ত নয়। আন্তর্জাতিক সংগঠনগুলি যাতে তাঁদের আধুনিক ব্যবস্থা ওই জেলাগুলিতে পৌঁছে দেয়, সেই আর্জি জানিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রক।

উৎক্ষেপণ স্থগিত হল চন্দ্রযান ২-এর

খোঁজ-খবর,ওয়েবডেস্কঃ- যান্ত্রিক ত্রুটি। আর এই ত্রুটির জেরে উৎক্ষেপণ স্থগিত রাখা হল চন্দ্রযান ২-এর । উৎক্ষেপণের ৫৬ মিনিট আগে ইসরোর তরফে মিশন স্থগিত রাখার কথা ঘোষণা করা হয়। ভারতীয় সময়ে রবিবার রাত ২.৫১ মিনিটে প্রথমবার চাঁদের অন্ধকার দিকে ‘বাহুবলী’ রকেট- জিএসএলভি এমকে থ্রি পাঠানোর কথা ছিল। পৃথিবীর মহাকাশ গবেষণায় মাইলফলক হত এটা। আপাতত স্থগিত মিশন। উত্ক্ষেপণের আগে ইসরো কর্তারা জানিয়েছিলেন, বাহুবালীর উড়ান নিয়ে কোনও চিন্তা নেই। আবহাওয়া ভাল। তবে চাঁদের মাটিতে অবতরণ নিয়েই চিন্তা বেশি। পাশাপাশি ইসরোর প্রধান জানান, অভিযান বাতিল হলে পরে তা উত্ক্ষেপণ করা যেতে পারে তবে তার জন্য জটিল প্রযুক্তিগত পদ্ধতি পার হতে হবে। এর জন্য লেগে যেতে পারে এক সপ্তাহ বা এক মাস।

আবেগ ভরা টুইট,মোদীর সঙ্গে সেলফি তুললেন অষ্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী !

খোঁজখবর,ওয়েব ডেস্ক : শুধু সাধারণ মানুষ নন, দেশ- বিদেশের তাবড় রাষ্ট্রপ্রধানরাও সেলফি তোলেন, স্বাভাবিকভাবেই তা ভাইরাল হয়, যেমন হল ভারতের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে অষ্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রীর সেলফি। শুধু তাই নয় টুইটারে মোদীকে নিয়ে রীতিমত আবেগ ভরা টুইট করলেন অষ্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন।

দু’জনের বন্ধুত্ব পুরনো নয়। আগে কখনও দেখাও হয়নি। প্রথম সাক্ষাত হল চরম ব্যস্ত একটি আন্তর্জাতিক কর্মকাণ্ডের মাঝে। এতকিছুর পরেও যাবতীয় ব্যস্ততা কাটিয়ে নতুন আলাপ হওয়া বন্ধুর সঙ্গে সেলফি তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করলেন। যা নজর কাড়ল সমগ্র বিশ্বের।

আলোচিত ব্যক্তিরা হলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন। দুই দেশেই অল্প সময় আগে হয়েছে সাধারণ নির্বাচন। নতুন প্রধানমন্ত্রী পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া। ভারতে দ্বিতিয়বারের জন্য প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন নরেন্দ্র মোদী। জাপানে আয়োজিত জি-২০ সম্মেলনে দেখা হয়েছে এই দুই রাষ্ট্রপ্রধানের।

আন্তর্জাতিক সেই সম্মেলনে ব্যস্ততা চরমে। নানাবিধ সূচী মেনে কাজ করতে হচ্ছে। এর মাঝেও সামাল দিতে হচ্ছে আন্তর্জাতিক কূটনীতি। যাবতীয় প্রতিকূলতা কাটিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সেলফি তুলে তা ট্যুইটারে পোস্ট করেছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন। অন্যান্য অনেক রাষ্ট্রনেতাদের সঙ্গে তাঁর সাক্ষাৎ হলেও একমাত্র ভারতের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গেই সেলফি তুলে তা পোস্ট করেছেন মরিসন।

এখানেই শেষ হয়ে যায়নি তাঁর মোদী প্রীতি। ভারতের প্রধানমন্ত্রীর প্রতি নিজের ভালোবাসা বুঝিয়ে দিয়েছেন ছবির ক্যাপশনে বুঝিয়ে দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী। সেখানে তিনি লিখেছেন, “মোদী কত্তো ভালো!” উল্লেখযোগ্য বিষয় হচ্ছে ছবির ক্যাপশনের অক্ষরগুলি ইংরেজিতে থাকলেও শব্দগুলি বহন করছিল ভারতীয় ভাষা হিন্দি উচ্চারণ। স্কট মরিসন এসএমএস ল্যাঙ্গুয়েজে লিখেছেন, “কিতনে আচ্ছে হ্যায় মোদী!”

ট্রাম্প-মোদী বৈঠক

খোঁজখবর,ওয়েবডেস্কঃশুক্রবার জাপানের ওসাকায় G-20 সম্মলন শুরুর আগে হল মোদী-ট্রাম্প বৈঠক। বৃহস্পতিবার মার্কিন পণ্যে ভারতের বাণিজ্য শুল্ক বৃদ্ধির বিষয়ে ভারতকে কড়া বার্তা দিয়েছিলেন মার্কিন রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প। যার জেরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের দ্বিপাক্ষিক বৈঠকের আগেই আলোচনার কেন্দ্রে চলে আসে দুই দেশ। আর সেই পরিস্থিতেই শুক্রবার দুই দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও উন্নত করতে আলোচনায় বসেন মোদী ও ট্রাম্প। এদিন ঘণ্টাখানেকের আলোচনার পর দুই দেশের দুই রাষ্ট্রপ্রধান যৌথ সাংবাদিক সম্মলন করেন। এদিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সাংবাদিকদের জানান, দেশের মানুষ দ্বিতীয়বার তাঁর নেতৃত্বে বিজেপিকে ক্ষমতায় এনেছে। যার পর জাপানে ফের একবার দেখা হল তাঁর সঙ্গে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের। প্রধানমন্ত্রী বলেন, এদিন দুই দেশের আলোচনায় প্রধানত চারটি বিষয়ে আলোচনা হয়। যার মধ্যে প্রধানত ছিল ইরাক সমস্যা, ৫জি প্রযুক্তি,দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও দৃঢ় করা এবং সামরিক ক্ষেত্রে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও মজবুত করা।

দুটি আত্মঘাতী বিস্ফোরণে কেঁপে উঠলো তিউনিশে

খোঁজখবর,ওয়েবডেস্কঃএকই সময়ে দুটি আত্মঘাতী বিস্ফোরণ তিউনিশিয়ার রাজধানী তিউনিশে। প্রথম বিস্ফোরণ হয় ফরাসি দূতাবাসের সামনে। এই ঘটনায় আহত বহু। এদের মধ্যে একাধিকের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে। 
দ্বিতীয় বিস্ফোরণ হয়েছে দেশের সন্ত্রাসবাদী দমন শাখার অফিসের সামনে। রাজধানীর চার্লস দে গলি রাস্তায় ফরাসি দূতাবাসের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা এক পুলিশের গাড়িকে লক্ষ্য করে হামলা হয়। হামলায় পুলিশকর্মীদের পাশাপাশি সাধারণ নাগরিকও আহত হয়েছেন। সরকারি মতে, দু’জন পুলিশকর্মী ও তিন জন নাগরিক আহত হয়েছেন। যদিও বেসরকারি মতে, সংখ্যা আরও বেশি।এখনও কোনও জঙ্গি সংগঠন বিস্ফোরণের দায় স্বীকার করেনি। 

ফ্রিজ করা হল নীরব মোদী ও তার বোনের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট

খোঁজ-খবর,ওয়েবডেস্কঃ- এবার আরও চাপে পড়ল ঋণখেলাপে অভিযুক্ত হীরে ব্যবসায়ী নীরব মোদী। ২০০২ সালের অর্থপাচার রোধ আইনে নঈরব মোদী ও তাঁর বোন পূরবী মোদীর চারটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট বাজেয়াপ্ত করল সুইৎজারল্যান্ড। ওই অ্যাকাউন্টগুলিতে প্রায় ৩ কোটি ৭৪ লক্ষ ১১ হাজার ৫৯৬ মার্কিন ডলার অর্থাৎ ভারতী মুদ্রায় প্রায়  ২৮৩ কোটি টাকা রয়েছে। সুইৎজারল্যান্ডে মোট চারটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট রয়েছে নীরব ও তার বোনের৷ এই চারটি অ্যাকাউন্টই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে৷ এর আগে ইডির পক্ষ থেকে সুইস ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে জানানো হয় নীরব মোদীর ব্যাংক অ্যাকাউন্টে যে টাকা রয়েছে তা অবৈধ ও আয়ের সঙ্গে সঙ্গতিহীন৷ ভারতীয় ব্যাংক থেকে জালিয়াতি করে ওই টাকা নিজের নামে করেছে নীরব মোদী৷ এই মর্মে বেশ কিছু তথ্য ও নথিও জমা দিয়েছে ইডি৷ তারপরেই ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে সুইৎজারল্যান্ড প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে৷ চলতি বছরে নীরব মোদী গ্রেফতার হয় লন্ডনে। লন্ডনের আদালতে নীরবের নামে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছিল।

জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে জাপান পৌছলেন প্রধানমন্ত্রী

খোঁজখবর, ওয়েবডেস্ক : জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে অংশগ্রহণ করতে বৃহস্পতিবার জাপান পৌঁছালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সামিট চলাকালীন একাধিক দেশের রাষ্ট্রপ্রধানদের সঙ্গে পৃথকভাবে বৈঠকে বসবেন তিনি। তবে সবচেয়ে বেশি নজর থাকবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী মোদির আলোচনার উপর। উল্লেখ্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দ্বিতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠকের কি ফলশ্রুতি দাঁড়ায় এখন তার দিকেই তাকিয়ে আছে কূটনৈতিক বিশ্ব।

জাপানের ওসাকা শহরে জুনের ২৮ ও ২৯ তারিখ চলবে জি-২০ শীর্ষ সম্মেলন। এনিয়ে ষষ্ঠবার এই সম্মেলনে যোগ দিতে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। এদিন সকালে এয়ার ইন্ডিয়া-র বিমানে ওসাকার উদ্দেশে উড়ান দেওয়ার আগে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “নারী ক্ষমতায়ন, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা থেকে শুরু করে সন্ত্রাসবাদ ইস্যু নিয়ে অন্যান্য দেশের প্রধানদের সঙ্গে আলোচনা হবে। আন্তর্জাতিক মঞ্চে এই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে দেশের দৃষ্টিভঙ্গি তুলে ধরব আমরা।” এদিন সকালে জাপান পৌঁছানোর পর সে দেশের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তাঁকে স্বাগত জানান জাপানের ওসাকার ভারতীয় সম্প্রদায়। মোদি টুইট করে জানিয়েছেন, ‘‘ওসাকায় পৌঁছেছি জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে। উষ্ণ অভ্যর্থনা জানানোর জন্য ভারতীয় সম্প্রদায়ের কাছে কৃতজ্ঞ।”

সবুজায়নের ফলে বৃষ্টিস্নাত ভুটান!

খোঁজখবর, ওয়েব ডেস্ক : প্রকৃতিকে বাঁচিয়ে রাখার সুফল হিসেবে বিশুদ্ধ অক্সিজেনের ভাণ্ডার বলেই পরিচিত ছোট্ট দেশ ভুটান৷ বিশ্বের অন্যতম সুখী রাষ্ট্রের মর্যাদা হাসিল করাও হয়ে গিয়েছে৷ বিরাট সবুজায়ণের প্রভাবে বর্ষা মরশুমের প্রথম থেকেই জলে ভিজে যাচ্ছে ড্রাগন ভূমি।
তবে সেই বৃষ্টিও ক্রমে ভয়ঙ্কর আকার নিতে শুরু করল৷ প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের কবলে পড়ছে ছোট্ট দেশটি৷ আন্তর্জাতিক সীমান্ত এলাকার দুই পারে আমো চু (তোর্সা) নদীর তোড়ে বাড়ছে ক্ষয়ক্ষতি৷

পশ্চিমবঙ্গ সীমান্ত লাগোয়া ফুন্টশোলিং শহরের সঙ্গে রাজধানী থিম্পুর সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন৷ ভুটান পাহাড়ে অতি বৃষ্টির ফলে আমো চু নদীর (তোর্সা) জলস্ফীতি উদ্বেগে রেখেছে স্থানীয় বাসিন্দাদের৷ ভুটানে অতি বৃষ্টির কারণে সংলগ্ন উত্তর বঙ্গের জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ারেরও প্রবল বৃষ্টির সংবাদ এসেছে৷

বৃষ্টির কারণে প্রবল গরম থেকে মুক্তি মিলেছে স্থানীয় বাসিন্দাদের৷ ফুন্টশোলিং থেকে পারো অথবা থিম্পু পর্যন্ত যাওয়ার রাজপথের বিভিন্ন স্থানে নেমেছে ধস৷ বড় বড় পাথর পড়ে থাকায় গাড়ি চলাচল বন্ধ৷ সেই সঙ্গে বৃষ্টির তোড়ে ব্যাহত জনজীবন৷

ভুটানের সরকারি সংবাদ সংস্থা জানাচ্ছে, শুধু ফুন্টশোলিংয়ের এলাকা নয়, উত্তর ও পূর্ব ভুটানের বেশিরভাগ এলাকাতেই প্রবল বৃষ্টির জেরে বহু গ্রাম বিচ্ছিন্ন৷ সরকারি নির্দেশে শুরু হয়েছে রাস্তা সারাইয়ের কাজ৷ দুর্যোগ মাথা নিয়েই কোনরকমে কেউ কেউ বাইরে বেরিয়ে আসতে পারছেন৷

পরিস্থিতি কয়েকটি স্থানে আরও ভয়ঙ্কর৷ পাহাড়ি ঝোরা ও নদীতে নেমেছে হড়পা বান৷ ভুটানি সংবাদ মাধ্যমের খবর, গেদু, গোমদার, রিচাংলু এলাকায় হড়পা বানের ছবি ভয়াবহ৷ অন্যদিকে ধস নেমে বিচ্ছিন্ন দেশের অপর দুই প্রধান জনপদ জেলেফু ও সারপাং৷ এর জেরে খাদ্য সংকট তৈরি হতে পারে বেলও আশঙ্কা৷

থিম্পু থেকে প্রকাশিত আবহাওয়া রিপোর্টে বলা হয়েছে, আগামী কয়েকদিনে পরিস্থিতি আরও কঠিন হবে৷ কারণ ভুটানের উচ্চ পার্বত্য এলাকায় প্রবল বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা থাকছে৷ সেই জল নিচের দিকে নেমে আসার সময় বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হবে৷ প্রধানমন্ত্রী ড. লোটে শোরিংয়ের নির্দেশে কিছু এলাকায় ত্রাণ পাঠানোর কাজও শুরু হবে৷

#মিটু-র পরে নতুন ট্রেন্ড #আইলাভমাইক্লিভেজ

খোঁজ-খবর,ওয়েবডেস্কঃ- দেহের বিভঙ্গি নিয়ে আজও রাস্তাঘাটে কটূক্তি শুনতে হয় মেয়েদের। পোশাকের জন্য রাস্তাঘাটে হেনস্থার সম্মুখীন হওয়ার অভিজ্ঞতা কমবেশি অনেকেরই রয়েছে। সম্প্রতি ফ্রান্সের রাস্তায় ইভ-টিজারদের কবলে পড়ে হেনস্থার শিকার হন সেলিনা নামের এক মহিলা। সে সময় তাঁর পরনে ছিল ভি নেক টপ। তাতে তাঁর বক্ষ বিভাজিকা (ক্লিভেজ) দেখা যাচ্ছিল। আর সে জন্যই রাস্তায় ইভ-টিজারদের হাতে নিগৃহীত হতে হয় বলে জানিয়েছেন তিনি।
এই ঘটনার পর নিজেকে গুটিয়ে নেননি সেলিনা। পোশাকের জন্য হেনস্থা করার অসুস্থ মানসিকতাকে আঘাত হানতে প্রতিবাদের পথ বেছে নেন তিনি।সেই প্রতিবাদেরই অঙ্গ হিসাবে নিজের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট থেকে পাল্টা পোস্ট করেন তিনি। আর তার পরই সেই পোস্ট ট্রেন্ড হয়ে দাঁড়ায়। সেলিনার প্রতিবাদে গলা মিলিয়ে অন্যান্য মহিলারাও এগিয়ে এসেছেন সেলিনার দেখানো পথে প্রতিবাদ জানাতে। প্রতিবাদের অঙ্গ হিসাবে সেলেনা পোস্ট করেছেন নিজের ছবি। যেখানে প্রকট তাঁর ক্লিভেজ। এই ছবি ভাইরাল হতে বেশি সময় নেয়নি। তার পর থেকে সেলেনার সমর্থনে প্রচুর মহিলা নিজেদের ক্লিভেজের ছবি পোস্ট করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। সঙ্গে #আইলাভ মাই ক্লিভেজ।

কানাডা থেকে এক ঘুমে টরেন্টো, তারপর কি হল!

খোঁজখবর, ওয়েবডেস্ক : ঘুম মানে একেবারে জাঁকিয়ে ঘুম। যার জেরে ভয়াবহ অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হলেন এক ক্যানাডিয়ান যুবতি। বিমানে উঠেই জব্বর ঘুম ঘুমিয়ে পড়েছিলেন টিফানি অ্যাডামস্‌। যখন ঘুম ভাঙল তখন কানাডার ওই যুবতী নিজেকে পেলেন পার্ক করে রাখা অন্ধকার, বদ্ধ বিমানের ভিতর। এয়ার কানাডার কিউবেক থেকে টরন্টোগামী বিমানে ঘটনাটি ঘটেছিল এমাসের প্রথম সপ্তাহে। সম্প্রতি টিফানি ঘটনাটি তাঁর বন্ধুকে বলার পর তিনি সেটি সোশ্যাল ওয়েবসাইটে আপলোড করেন। তারপরই ঘটনা সামনে আসে।
টিফানির কথায়, বিমানে তাঁর আসনের পুরো রো–টাই খালি ছিল। তাই নিশ্চিন্তে আরামে ঘুমিয়ে পড়েছিলেন তিনি। ঘুম ভাঙে গাঢ় অন্ধকারে ভরা, বন্ধ বিমানে। কারণ টরন্টো বিমানবন্দরে অবতরণের পর যাত্রী এবং কর্মীরা নেমে গেলে বিমানটি বিমানবন্দর থেকে হ্যাঙ্গারে নিয়ে পার্ক করে দেওয়া হয়। সম্পূর্ণ খালি রো–র একটি আসনে ঘুমিয়ে থাকা টিফানিকে কেউই লক্ষ্য করেননি।
এদিকে ঘুম ভাঙার পর প্রথমে কিছু না বুঝলেও বিষয়টা বোধগম্য হতে এক বন্ধুকে ফোন করার চেষ্টা করেন টিফানি। কিন্তু ফোনের ব্যাটারি না থাকায় তা সম্ভব হয়নি। সেই মুহূর্তে ভয় না পেয়ে এবং বদ্ধ বিমানে কোনওরকমে শ্বাসকষ্টের ধাক্কা সামলে প্রথমে ফোনের চার্জিং পয়েন্ট খোঁজেন তিনি। কিন্তু পার্ক করা বিমানে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন থাকায় ফোন চার্জ করা যায়নি। এরপর একটি টর্চ পেয়ে সেই আলোতে কোনওমতে বিমানের একটি দরজা খোলেন তিনি। কিন্তু মাটি থেকে ৫০ ফুট উঁচু বিমান থেকে লাফাতে পারেননি। এরপর খোলা দরজার সামনে বসে টর্চের আলো ফেলে বিমানবন্দরে কর্মীদের দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করতে থাকেন। সৌভাগ্যক্রমে কিছুক্ষণ পর বিমানযাত্রীদের মালবাহী গাড়ির এক চালক সেই আলো দেখতে পেয়ে বিমানের কাছে গিয়ে টিফানিকে দরজার বাইরে বসে থাকতে দেখে হতবাক হয়ে যান। তিনিই অন্য কর্মীদের খবর দিলে পর টিফানিকে উদ্ধার করা হয়।
ওই ঘটনায় টিফানির কাছে ক্ষমা চেয়েছে এয়ার কানাডা। কীভাবে বিমানের ভিতর একজন যাত্রীকে রেখে কর্মীরা নেমে গেলেন তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে কোম্পানি। এদিকে সেসময় অসম সাহস দেখিয়ে মুক্তির উপায় খুঁজলেও টিফানি বলেছেন, সেদিনের পর থেকে এখনও ভালো করে ঘুমতে পারেননি তিনি। কারণ চোখ বুজলেই একটা আতঙ্ক তাড়া করে বেড়াচ্ছে তাঁকে।