প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রীয় গ্রামীণ স্বরাজ অভিযান

    0
    36

    প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী আজ মধ্যপ্রদেশের মান্দলায় এক জনসভায় রাষ্ট্রীয় গ্রামীণ স্বরাজ অভিযান-এর সূচনা করেছেন। তিনি আগামী পাঁচ বছরের জন্য আদিবাসীদের সার্বিক উন্নয়নে পরিকল্পনার এক রূপরেখা প্রকাশ করেছেন।মান্দলা জেলার মানেরি-তে ইন্ডিয়া অয়েল কর্পোরেশনের একটি এলপিজি বটলিং প্ল্যান্টের ভিত্তিপ্রস্তরও তিনি স্থাপন করেন। স্থানীয় সরকারের এক ডায়রেক্টরিও তিনি প্রকাশ করেন।যে সব গ্রামে ১০০ শতাংশ ধোঁয়ামুক্ত রান্নাঘরের লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হয়েছে, ‘মিশন ইন্দ্রধনুষ’-এর আওতায় যে সব গ্রামে ১০০ শতাংশ প্রতিষেধক টিকা দেওয়া হয়েছে এবং ‘সৌভাগ্য’ কর্মসূচির আওতায় যে সব গ্রামে ১০০ শতাংশ বৈদ্যুতিকীকরণ হয়েছে, সেই গ্রামের সরপঞ্চদের সম্বর্ধনা জানান প্রধানমন্ত্রী।মান্দলা থেকে সারা দেশের পঞ্চায়েতি রাজ প্রতিনিধিদের উদ্দেশে এক ভাষণে প্রধানমন্ত্রী মহাত্মা গান্ধীর গ্রাম স্বরাজ এবং ‘গ্রামোদয় থেকে রাষ্ট্রোদয়’-এর উদাত্ত আহ্বান স্মরণ করেন। তিনি বলেন, জাতীয় পঞ্চায়েতি রাজ দিবসে মধ্যপ্রদেশে আসতে পেরে তিনি আনন্দিত। প্রধানমন্ত্রী বলেন যে, মহাত্মা গান্ধী সর্বদাই গ্রামের গুরুত্বের কথা তুলে ধরতেন এবং গ্রাম স্বরাজের কথা বলতেন। তিনি সংশ্লিষ্ট সকলকে গ্রামের জন্য কাজ করে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি পালনের কথা পুনরায় স্মরণ করান।প্রধানমন্ত্রী বলেন যে, গ্রামোন্নয়নের কথা বলার সময় বাজেট বরাদ্দ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু, বিগত কয়েক বছরে আলোচনার অভিমুখটি পরিবর্তিত হয়েছে বলে তিনি মন্তব্য করেন। সাধারণ মানুষ বর্তমানে একটি প্রকল্পের জন্য বরাদ্দকৃত অর্থ যাতে সদ্ব্যবহার হয়, তা সুনিশ্চিত করার প্রয়োজনের ওপর জোর দিচ্ছেন। এছাড়া, এই ধরণের প্রকল্পের কাজ যাতে নির্ধারিত সময়ে এবং স্বচ্ছতার সঙ্গে করা হয় তার কথাও বলা হচ্ছে বলে প্রধানমন্ত্রী উল্লেখ করেন।তিনি সাধারণ মানুষকে তাঁদের সন্তানসন্ততিদের শিক্ষার ওপর নজর দেওয়ার আহ্বান জানান এবং বলেন যে শিশুর ভবিষ্যতের জন্য এটি অত্যন্ত প্রয়োজন।কৃষিক্ষেত্রে স্বনির্ভরতার লক্ষ্যে বিভিন্ন উদ্যোগের প্রসঙ্গও তিনি তুলে ধরেন। পঞ্চায়েতের প্রতিনিধিদের প্রতি তিনি জল সংরক্ষণের প্রতি নজর দেওয়ার আহ্বান জানান এবং জলের প্রতিটি বিন্দু যাতে সংরক্ষিত হয়, তা নিশ্চিত করার কথা বলেন।শ্রী নরেন্দ্র মোদী ‘জন ধন যোজনা’র মাধ্যমে আর্থিক অন্তর্ভুক্তির গুরুত্বের কথা তুলে ধরেন। এছাড়া, ‘বন ধন যোজনা’র মাধ্যমে উপজাতীয় সম্প্রদায়ের ক্ষমতায়ন এবং ‘গোবর ধন যোজনা’র মাধ্যমে কৃষকদের স্বয়ম্ভর করে তোলা এবং বর্জ্য পদার্থকে শক্তিতে রূপান্তরের কথাও উল্লেখ করেন।প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশের গ্রামগুলির রূপান্তর করা গেলে, তাই ভারতের রূপান্তর সুনিশ্চিত করবে।প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন যে, সাম্প্রতিক সময়ে কেন্দ্রীয় সরকার এমন কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে যার ফলে মহিলাদের নিরাপত্তা সুরক্ষিত হবে।

    LEAVE A REPLY