প্রথম বাজেট পেশ : কতটা সফল হবেন দেশের প্রথম মহিলা অর্থমন্ত্রী !

খোঁজখবর,ওয়েব ডেস্ক : ইন্দিরা গান্ধির পর নির্মলা সীতারমণই প্রথম একজন মহিলা যিনি পূর্ণ মন্ত্রী রূপে অর্থ বিভাগের দায়িত্ব পেলেন ৷ ১৯৭০-৭১ সালে প্রধানমন্ত্রীত্বের সঙ্গে সঙ্গে অর্থমন্ত্রকের দায়িত্ব সামলাতেন ইন্দিরা গান্ধি ৷ স্বাভাবিক ভাবেই মোদী সরকারের সেকেন্ড ইনিংসে যখন অর্থমন্ত্রকের গুরুদায়িত্ব পালন করেছেন নির্মলা সীতারমণ বাড়তি প্রত্যাশা তৈরি হবে এটাই স্বাভাবিক।
কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ হওয়ার কথা আগামী ৫ জুলাই। অর্থ মন্ত্রক আগেই ইঙ্গিত দিয়েছে, লোকসভা নির্বাচনের আগে গত ফেব্রুয়ারি মাসে পেশ হওয়া অর্ন্তবর্তীকালীন বাজেটের বরাদ্দ কার্যত অপরিবর্তিত রাখা হবে। এই মর্মে একটি বিজ্ঞপ্তিও জারি করেছে মন্ত্রক।

ওয়াকিবহাল মহল মনে করছে, প্রথমবারের জন্য বাজেট পেশ করতে গিয়ে নির্মলাকে একঝাঁক গুরুত্বপূর্ণ সমস্যার মোকাবিলা করতে হবে। তার মধ্যে রয়েছে অর্থনীতির মন্দাভাব দূরীকরণের উপায় স্থির করা, রফতানি বাড়ানো, নতুন চাকরি সৃষ্টির উদ্যোগ গ্রহণ, কৃষিক্ষেত্রের বিভিন্ন সংকট মোকাবিলা ইত্যাদি।

প্রথম মোদি সরকারের ক্যাবিনেটে ছিলেন প্রথম মহিলা প্রতিরক্ষামন্ত্রী ৷ ১৯৮২ সালে ইন্দিরা গান্ধির পর বহুবছর বাদে একজন ভারতীয় মহিলার দায়িত্বে ছিল ভারতের সুরক্ষা ৷ সফলভাবে সেই দায়িত্ব সম্পন্ন করার পর এবার ফের গুরুত্বপূর্ণ ও নয়া ভূমিকায় নির্মলা সীতারমণ ৷ আজ সফল রাজনীতিবিদ, সাংসদ ও সর্বপরি একজন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ৷ নির্মলা সীতারমণের পেশাগত জীবনের শুরু হয়েছিল একজন সেলস গার্ল হিসেবে ৷

এরপর দীর্ঘ দিনের সঙ্গী ডঃ পরাকালা প্রভাকরের সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়েন নির্মলা সীতারমণ ৷ জওহরলাল নেহেরু ইউনির্ভাসিটিতেই তাঁর সঙ্গে পরিচয় নির্মলা সীতারমণের ৷ এরপর পিএইড ডিগ্রির জন্য লন্ডনে যান ডঃ প্রভাকর ৷ স্বামীর সঙ্গেই টেমসের পাড়ে সংসার পাতেন নির্মলা ৷রাইজিং ইন্ডিয়ার মঞ্চে নির্মলা সীতারমণ এরপর দীর্ঘ দিনের সঙ্গী ডঃ পরাকালা প্রভাকরের সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়েন নির্মলা সীতারমণ ৷ সর্বভারতীয় ইংরেজি সংবাদ মাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী, লন্ডনের এক হোম স্টোরে সেলস গার্লেরও কাজ করেছেন নির্মলা ৷ পরে অবশ্য তিনি লন্ডনে একটি সংস্থার সিনিয়র ম্যানেজার পোস্টে কাজ করতেন ৷ ২০০৩ থেকে ২০০৫ পর্যন্ত জাতীয় মহিলা কমিশনের সদস্যও ছিলেন নির্মলা সীতারমণ ৷ সর্বভারতীয় ইংরেজি সংবাদ মাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী, লন্ডনের এক হোম স্টোরে সেলস গার্লেরও কাজ করেছেন নির্মলা ৷ সর্বভারতীয় ইংরেজি সংবাদ মাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী, লন্ডনের এক হোম স্টোরে সেলস গার্লেরও কাজ করেছেন নির্মলা ৷ ৷ ২০০৩ থেকে ২০০৫ পর্যন্ত জাতীয় মহিলা কমিশনের সদস্যও ছিলেন নির্মলা সীতারমণ ৷
তবে মোদী সরকারের দ্বিতীয় অধ্যায়ে বাজেট পেশ করার সময় নির্মলার পূর্বসুরী অর্থমন্ত্রী অরুণ জেঠলি বা ইউপিএ আমলের অর্থমন্ত্রী পি চিদাম্বরমের সঙ্গে তুল্যমূল্য তুলনা টানা হবে এটা নির্মলা ভালোই জানেন। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে অর্থমন্ত্রকের দায়িত্বভার বুঝে নেওইয়ার পরেই যে ভাবে তিনি দুর্নীতি পরায়ন আয়কর অফিসারদের বিরুদ্ধে সাফাই অভিযান শুরু করেছেন তাতে তিনি যে বড় সহজ ঘাঁটি নন তা বুঝিয়ে দিয়েছেন ভালোভাবে। এখন দেখার নিজের প্রথম বাজেটের বৈতরণী কতটা ভালোভাবে উতরণ তিনি।