ফের পাহাড়ের গা বেয়ে চলতে শুরু করেছে টয়ট্রেন

    0
    57

    খোঁজখবর ওয়েবডেস্ক ঃ  সমস্ত বিপত্তি সামাল দিয়ে ফের পাহাড়ের গা বেয়ে চলতে শুরু করেছে টয়ট্রেন। নতুন রূপে টয়ট্রেনকে তুলে ধরে পর্যটকদের সামনে তা আরও আকর্ষণীয় করে তোলাই দার্জিলিং হিমালয়ান রেল কর্তৃপক্ষের লক্ষ্য।অন্যমাত্রা পেতে চলেছে দার্জিলিংয়ের পর্যটন শিল্প। পাহাড়ি বাঁকে চলা টয়ট্রেনে যুক্ত হল বাতানুকুল কামরা।টয় ট্রেনের উপর দিয়ে কম ঝড়-ঝাপটা যায়নি। পাহাড়ি ধসে ট্রেন চলাচল ব্যাহত হওয়ার মতো সমস্যা তো আছেই, গত বছর গোর্খাল্যান্ড আন্দোলনের সময় পুড়িয়ে দেওয়া হয় ঐতিহ্যশালী স্টেশন-সহ রেলের সম্পত্তিও।সমস্ত বিপত্তি সামাল দিয়ে ফের পাহাড়ের গা বেয়ে চলতে শুরু করেছে টয়ট্রেন। নতুন রূপে টয়ট্রেনকে তুলে ধরে পর্যটকদের সামনে তা আরও আকর্ষণীয় করে তোলাই দার্জিলিং হিমালয়ান রেল কর্তৃপক্ষের লক্ষ্য।রেলের এক আধিকারিক জানান, একটা সময় ছিল যখন পাহাড়ের আবহাওয়া আরামদায়ক ছিল। পাহাড়ের গা বেয়ে নীচে নেমে এলেও সুকনা পর্যন্ত বাতাসে ঠান্ডা অনুভূতি হত।এখন অবশ্য পাহাড় থেকে বেশ কিছুটা নেমে এলেই গরমে অস্বস্তি বোধ করেন অনেক পর্যটক। এমতাবস্থায় কিছু হলেও সমস্যায় পড়েন বিদেশি পর্যটকেরা। এছাড়াও আচমকা আবহাওয়া বদলে সমস্যায় পড়েন এ দেশের পর্যটকরাও।আধিকারিক জানান, পর্যটকদের কথা মাথায় রেখেই টয়ট্রেনে বাতানুকুল কামরা জুড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। সেই মোতাবেক একটি ট্রায়াল রানও হয়েছে পাহাড়ের বুকে। কিছুদিনের মধ্যেই প্রায় প্রতিটি টয়ট্রেনেই একটি করে বাতানুকুল কামরা জুড়ে দেওয়া হবে। এছাড়াও চাটার্ড ট্রেনের ক্ষেত্রে পর্যটকদের চাহিদা অনুসারে একটি বা দু’টি শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কামরা বিশিষ্ট ট্রেনও চালানো হবে। রেল কর্তারা অবশ্য আশ্বস্ত করছেন, বাতানুকুল কামরার টিকিটের দামও সাধারণের নাগালের মধ্যেই রাখার চেষ্টা করা হবে।

    LEAVE A REPLY