সরকারের পাশে থেকে বনধ ব্যর্থ করে দিয়েছেন বাংলার মানুষ : পার্থ চট্টোপাধ্যায়

    0
    59

    খোঁজখবর ওয়েবডেস্ক :  “বাংলার মানুষ বুঝতে পেরেছেন বনধে সাড়া দেওয়ার দরকার হয় না। তাঁরা সরকারের পাশে থেকে বনধ ব্যর্থ করে দিয়েছেন। এটা মানুষেরই জয়। যারা বাংলাকে শেষ করে দিতে চেয়েছিলেন, তাঁরা পরাজিত।” বামেদের ডাকা ৬ ঘণ্টার সাধারণ ধর্মঘট নিয়ে আজ এই মন্তব্য করলেন তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। পাশাপাশি তিনি বলেন, “জনগণের দ্বারা প্রত্যাখ্যাত CPI(M), কংগ্রেস ও BJP মিলে যে ডাক দিয়েছিল, বাংলার মানুষ তা প্রত্যাখ্যান করেছেন। আমরা তাঁদের অভিনন্দন জানাই।” পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে মামলা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “হাইকোর্ট আমাদের মামলা গ্রহণ করেছে। মানুষ আমাদের পাশে আছেন। জয় আমাদের হবেই।” এদিকে আজ বহরমপুরে কংগ্রেসের অবস্থানমঞ্চ থেকে হুমায়ুন কবীর বলেন, “যে সব আধিকারিক শাসকদলের দালালি করবে তাঁদের বিরুদ্ধে আমরা আক্রমণ শানাতে বাধ্য হব। তাঁদের এই পৃথিবী থেকে সরিয়ে দিয়ে জেলে যাব। তার নেতৃত্ব দেব আমি। জেল খাটতে প্রস্তুত আছি। কিন্তু, বিনা খুনে নয়। খুন করে জেল খাটব।”
    এপ্রসঙ্গে প্রতিক্রিয়া জানতে চাওয়া হলে পার্থবাবু বলেন, “অনেকেই তো অনেক কিছু বলছে। এধরনের কথাবার্তার জন্যই তো তাঁকে দলে বেশিদিন থাকতে হয়নি। তাঁর দাদাও এখন নেই। চাটনিবাবু চলে গেছেন। চাটনিবাবু কায়দা করে দলটাকে বিশৃঙ্খল করার চেষ্টা করেছিল, সময়মতো তাঁকে বিদায় দিয়ে দল এখন ঐক্যবদ্ধ।” প্রসঙ্গত, কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন হুমায়ুন কবীর। পরে তৃণমূল তাঁকে দল থেকে বহিষ্কার করে। ফের কংগ্রেসে যোগ দেন হুমায়ুন কবীর।
    একই পদে দলের একাধিক নমিনেশন জমা নিয়ে পার্থবাবু বলেন, “এটা কোনও সমস্যা নয়। দল সাংগঠনিকভাবে বড় হলে ভুল  বোঝাবুঝি হয়। প্রার্থী থাকবেন একজনই। কোনও দলাদলি থাকবে না। কোনওমতেই মাথাচাড়া দিতে দেব না। যারা উল্লসিত হওয়ার চেষ্টা করছেন, তাঁদের নিরাশ হতে হবে।”

    LEAVE A REPLY