‘পাবুক’ এর প্রভাবে হেরফের হবে রাজ্যের তাপমাত্রার, বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই

    0
    2491

    খোঁজখবর ওয়েবডেস্ক ঃ  গত ১০ দিনের বেশি সময় ধরে কলকাতা সহ গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা স্বাভাবিকের তলায় রয়েছে। বৃহস্পতিবারও কলকাতায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১২.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। উত্তরবঙ্গের হিমালয় সংলগ্ন এলাকা তো বটেই, এমনকী গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের বেশ কয়েকটি জায়গায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রির নীচে ঘোরাফেরা করছে। আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের অধিকর্তা গণেশ দাস জানিয়েছেন, আগামী কয়েকদিন কলকাতায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১২-১৩ ডিগ্রির আশপাশে থাকবে। ৭-৮ জানুয়ারি তাপমাত্রা কিছুটা বাড়তে পারে।  একদিকে ঘূর্ণিঝড় ‘পাবুক’ এগিয়ে আসছে আন্দামানের দিকে। অন্যদিকে, শক্তিশালী পশ্চিমী ঝঞ্ঝা সৃষ্টি হয়েছে পশ্চিম হিমালয়ে। তবে ঘূর্ণিঝড়টির প্রভাবে বঙ্গোপসাগর থেকে বেশি পরিমাণে জলীয় বাষ্প গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের বায়ুমণ্ডলে ঢুকে পড়বে বলে জানা গেছে। এর জেরে ৭-৮ জানুয়ারি তাপমাত্রা কিছুটা বাড়তে পারে। এর পাশাপাশি আগামী ৪ থেকে ৬ জানুয়ারি পর্যন্ত পশ্চিম হিমালয় সংলগ্ন কাশ্মীর, হিমাচলপ্রদেশ ও উত্তরাখণ্ডের উপর একটি শক্তিশালী পশ্চিমী ঝঞ্ঝ প্রবাহিত হবে। এর প্রভাবে ওই এলাকায় ভারী তুষারপাত হবে।  গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ ও উত্তরবঙ্গে বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা নেই। বৃষ্টির পর কনকনে ঠান্ডা উত্তুরে হাওয়া উত্তর ভারতের দিকে আসতে শুরু করলে আগামী সপ্তাহে তাপমাত্রা আরও কমার সম্ভাবনা থাকছে।
    আগামী কয়েকদিন শীতের আমেজ বজায় থাকবে। আগামী সপ্তাহের গোড়ার দিকে তাপমাত্রা সাময়িকভাবে কিছুটা বাড়তে পারে। বায়ুমণ্ডলে জলীয় বাষ্পের মাত্রা বাড়ার জন্য এটা হবে। তারপর ফের জাঁকিয়ে শীত পড়ার অনুকূল পরিস্থিতি তৈরি হবে বলে মনে করছেন আবহাওয়াবিদরা। কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, দক্ষিণ চীন সাগরে সৃষ্টি হওয়া ঘূর্ণিঝড় ‘পাবুক’ পশ্চিম-উত্তর পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে কাল শনিবার আন্দামান সাগরের উপর চলে আসবে। রবিবার রাত নাগাদ ঘূর্ণিঝড়টি আন্দামান দ্বীপপুঞ্জ অতিক্রম করে চলে যাবে বলে আশা করছে আবহাওয়া দপ্তর।

    LEAVE A REPLY