৬ বছরের শিশুর শংসাপত্রে বয়স ১০৬ বছর !

    0
    2563

    খোঁজখবর ওয়েবডেস্ক ঃ   বয়সের হেরফেরে স্কুলে ভর্তি হতে পারছে না ধূপগুড়ি ব্লকের খলাইগ্রামের রেণু পারভিন।ছয় বছরের শিশুর জন্মের শংসাপত্রে বয়স রয়েছে ১০৬ বছর ধূপগুড়ি পুরসভা থেকে জন্মের ভুল শংসাপত্র দেওয়ায় বিপাকে পড়েছে দরিদ্র পরিবারটি। আর জন্মের এই ভুল শংসাপত্র নিয়ে কন্যাসন্তানকে কোনও স্কুলে ভর্তি করাতে পারছেন না শিশুটির বাবা রবিদুল ইসলাম। কন্যাসন্তানের জন্মের শংসাপত্রের এই ত্রুটি সংশোধন করার জন্য পুরসভা ও হাসপাতালে ঘোরাঘুরি করেও কোন লাভ হয়নি। ত্রুটি সংশোধন না করে তাকে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন শিশুটির বাবা।
    ২০১২ সালের ১৯ ডিসেম্বর পারভিনের জন্ম। সেখানে পুরসভা লিখেছে পারভিনের জন্ম ১৯১২ সালের ১৯ ডিসেম্বর। পরভিনের বাবাকে একবার হাসপাতাল তো একবার পুরসভা ঘুরে বেড়াতে হচ্ছে । ধূপগুড়ি গ্রামীণ হাসপাতালে ২০১২ সালে পারভিনের জন্ম হওয়ার পর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জননী ও শিশু সুরক্ষা যে কার্ড দিয়েছিল তাতে শিশুর জন্মের তারিখ ও বছর ঠিক ছিল বলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দাবি করেছে। আর সেই প্রমাণপত্র দেখেই পুরসভা থেকে জন্মের শংসাপত্র দেওয়া হয়। তাই এক্ষেত্রে পুরসভার তরফেই ভুল হয়েছে বলে অভিযোগ। তাই ভুল সংশোধনের ক্ষমতা তাদের হাতে নেই বলে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।
    ধূপগুড়ি পুরসভার ভাইস চেয়ারম্যান রাজেশ কুমার সিং বলেন, গত পুরবোর্ড এই ভুল শংসাপত্র দিয়েছে। তাই বিষয়টি আমার জানা ছিল না। তবে আশা করছি সমস্যা মিটে যাবে।

    LEAVE A REPLY