আগামী ৮-৯ ই জানুয়ারী ধর্মঘট হবে কি !

খোঁজখবর ওয়েবডেস্ক ঃ   সোমবার বছরের শেষ দিনে সিপিএমের রাজ্য দপ্তরে আগামী ৮-৯ ই জানুয়ারী ধর্মঘট নিয়ে আলোচনায় বসে ১৭টি বাম ও সহযোগী দলের শীর্ষ নেতৃত্ব। সেখানে ওই দলগুলি রাজ্যে একক ও যৌথ প্রচার সম্পর্কে খতিয়ান পেশ করে। সেই খতিয়ান পর্যালোচনা করে দেখা গিয়েছে, অন্যান্যবারের তুলনায় এবার প্রচারের বহর অনেক বেশি। তবে গ্রামাঞ্চলে এখনও কিছু খামতি থেকে গিয়েছে এব্যাপারে। সেই কারণে কৃষক ও খেতমজুর সংগঠনগুলিকে বাড়তি দায়িত্ব দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। সেই সঙ্গে আগামী সাত দিন সামগ্রিক প্রচারের ঝাঁঝ ও পরিমাণ আরও বাড়ানোর পক্ষেও মত দিয়েছে নেতৃত্ব।  .আগামী ৮-৯ জানুয়ারি গোটা দেশে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে ধর্মঘট ডেকেছে যেসব শ্রমিক ও কর্মচারী সংগঠন, তাদের মধ্যে একাধারে বামপন্থী থেকে ডানপন্থীরাও রয়েছে। সেই কারণে বাংলায় এবারের ধর্মঘটকে সর্বাত্মক চেহারা দিতে গত এক মাস ধরে নিবিড় প্রচারে জোরও দিয়েছে তারা। আগামী এক সপ্তাহে এই প্রচারকে তুঙ্গে নিয়ে যাওয়ার জন্য এবার সরাসরি দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিচ্ছে বাম নেতৃত্ব। এজন্য বামফ্রন্ট ও সহযোগী দলগুলির শীর্ষস্থানীয় নেতারাও আসরে নামছেন।

শুধু তাই নয়, ধর্মঘটের দু’দিনই এবার রাস্তা ও রেল স্টেশনে নেতাদের পাশাপাশি কর্মীদের সর্বাধিক সংখ্যায় মোতায়েন থাকার নিদানও দিয়েছেন তাঁরা। রাজ্য অচল করতে প্রয়োজনে জাতীয় ও রাজ্য সড়ক এবং রেল লাইন অবরোধ করারও আভাস দিয়েছে নেতৃত্ব। শাসক শিবির ও প্রশাসনের সঙ্গে আগ বাড়িয়ে সংঘাতে না গেলেও, এই দু’দিন কোনওভাবেই ঘরে বসে থাকা যাবে না বলেও জেলাওয়াড়ি নির্দেশ দিয়েছে তারা। বিশেষ করে এবার পুরোপুরি বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে ডাকা এই ধর্মঘটের ব্যাপারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তাঁর দল শেষমেশ কী অবস্থান গ্রহণ করে, তার দিকে তাকিয়ে রয়েছে তারা। অন্যান্যবারের মতো তৃণমূল ও তাদের প্রশাসন যদি কঠোর হাতে ধর্মঘট মোকাবিলায় আসরে নামে, তাহলে তার থেকে রাজনৈতিক ফায়দা তোলারও পরিকল্পনা করে রেখেছে বাম নেতৃত্ব। সেক্ষেত্রে কংগ্রেস সহ অন্যান্য বিজেপি বিরোধী দলগুলির ধর্মঘটের পক্ষে থাকার অবস্থানকে সামনে আনবে তারা। সেই সঙ্গে সাধারণ জনগণের জীবনযন্ত্রণা দূর করতে তৃণমূল সুপ্রিমো আদৌ আগ্রহী নন বলে পাল্টা প্রচারে নামার কথাও ভেবেছে তারা। সেই প্রচারে সরাসরি ‘মোদির দোসর মমতা’— এই স্লোগানকে হাতিয়ার করবে তারা। তবে আপাতত তারা তৃণমূলনেত্রীর মোদিবিরোধী অবস্থানের সত্যতা বাংলার মানুষের সামনে প্রমাণ করতে তাঁকে এই ধর্মঘটকে সমর্থন করার আহ্বানই জানিয়েছে।