প্রচারে মুখোমুখি মোদী- রাহুল

    0
    40

    খোঁজখবর, ওয়েব ডেস্ক : একই সঙ্গে দুই মহারথীকে দেখা যাবে ছত্তিশগড়ে। এ রাজ্যের প্রথম পর্যায়ের নির্বাচনের জন্য শুক্রবার প্রচারে এলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। জানা গিয়েছে, একদিকে মোদী প্রচার চালাবেন বস্তার জেলা সদরে, জগদ্দলপুরে। অন্যদিকে কংগ্রেস সভাপতি দু’‌দিনের সফরে এ রাজ্যে নির্বাচনী প্রচারে বেড়োবেন। তিনি পাঁচটি জনসভা সহ এ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী রামান সিংয়ের কেন্দ্র রাজনন্দগাঁওতেও মিছিল করবেন বলে জানা গিয়েছে। বিজেপি মুখপাত্র জানিয়েছেন, শুক্রবার সকাল ১১টা ২০ নাগাদ রায়পুর বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এসে পৌঁছান এবং এখান থেকে হেলিকপ্টারে করে জগদ্দলপুরে যান। এখানে জনসভার পর দুপুর ২টোর সময় রায়পুর বিমানবন্দরের উদ্দেশ্যে বেড়িয়ে যাবেন এবং দিল্লিতে ফিরে আসবেন তিনি। বিজেপি মুখপাত্র বলেন, ‘‌রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনের জন্য প্রধানমন্ত্রীর এটাই প্রথম নির্বাচনী প্রচার। দলের প্রচারে আরও ক্ষমতা দেবে হাই–ভোল্টেজ এই প্রচার।’‌

    রাজ্য কংগ্রেসের প্রধান জানিয়েছেন, এদিন কাংকর জেলার পাখানজোড় থেকে প্রচার শুরু করবেন রাহুল গান্ধী৷ এরপর রাজনন্দগাঁওতে রয়েছে দুটি জনসভা৷ শনিবার প্রচারসভা করার কথা চারমা ও কোন্দদাগাঁওতে৷ শুক্রবার রাজনন্দগাঁওতে রাত কাটাবেন তিনি। জগদ্দলপুরে কংগ্রেস কর্মীদের সঙ্গে কথাও বলবেন রাহুল গান্ধী। রাফালে থেকে নোটবন্দী, নানা ইস্যুতে মোদী সরকারের বিরুদ্ধে একনাগাড়ে আক্রমণ শানিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি৷ এদিনের প্রচারেও সেই সব ইস্যুতেই গেরুয়া শিবিরকে ঘায়েল করতে মরিয়া থাকবেন রাহুল, মনে করছে রাজনৈতিক মহল৷
    মুখ্যমন্ত্রী রামান সিংও নিজের কেন্দ্রে শুক্রবার সন্ধ্যায় জনসভা করবেন। তিনি প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারি বাজপেয়ির দিদির মেয়ে করুণা শুক্লার বিপক্ষে দাঁড়িয়েছেন। শনিবারই প্রথম পর্যায়ের নির্বাচনের প্রচারের শেষদিন। ১২ নভেম্বর মাওবাদী অধুষ্যিত জেলাগুলিতে ১৮টি আসনে নির্বাচন হবে। বাকি ৭২টি আসন নিয়ে দ্বিতীয় পর্যায়ের নির্বাচন হবে ২০ ডিসেম্বর এবং গণনা হবে ১১ ডিসেম্বর।

    LEAVE A REPLY