মুম্বইয়ের জনবহুল এলাকায় বিমান দুর্ঘটনা, মৃত অন্তত ৫

    0
    170

    খোঁজখবর ওয়েব ডেস্ক: সময় তখন দুপুর ১ টা ৩৫ মিনিট ঠিক সেই সময় মুম্বইয়ের জনবহুল ঘাটকোপার এলাকায় ভেঙে পড়ল চাটার্ড প্লেন।প্রাথমিকসুত্রে জানা গিয়েছে যে, ঘটনায় অন্তত ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে । মৃতদের মধ্যে ৩ জন যাত্রী, একজন পাইলট এবং একজন পথচারী বলে মনে করা হচ্ছে। দুর্ঘটনা ঘটা মাত্রই ঘটনাস্থলে আগুন লেগে যায়। লেলিহান শিখায় ছেয়ে যায় বিস্তীর্ণ অঞ্চল। কালো ধোঁয়ায় ছেয়ে গিয়েছে গোটা এলাকা।ঠিক শহরের মাঝখানে এতবড় দুর্ঘটনা ঘটায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে।তবে, একটুর জন্য রক্ষা পেয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে পাশের নির্মীয়মাণ বহুতলে কর্মরত প্রচুর শ্রমিকগণ ।ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে দমকল এবং পুলিশ।

    প্রসঙ্গত, আজ দুপুর দেড়টা নাগাদ বিমানবন্দরে অবতরণের কথা ছিল চাটার্ড প্লেনটির। কিন্তু অবতরণের আগেই ভেঙে পড়ে পাঁচ আসন বিশিষ্ট কিং এয়ার সি-৯০ বিমানটি। স্থানীয় সুত্রে খবর পরীক্ষামূলকভাবে জুহু থেকে টেক-অফ করে বিমানটি। দুপুর ১ টা ৩৫ মিনিট নাগাদ ঘাটকোপারের মালিক এস্টেটের টেলিফোন এক্সচেঞ্জের কাছে ভেঙে পড়ে পাঁচ আসন বিশিষ্ট চাটার্ড প্লেনটি। দুর্ঘটনার পরই আগুনের শিখা দেখা যায় ঘটনাস্থল থেকে। স্থানীয়দের দাবি, বিমানটি ভেঙে পড়ার পর তিনবার ছোটখাটো বিস্ফোরণের শব্দ পান তারা।

    সুত্রের খবর, বিমানটি উত্তরপ্রদেশ সরকারের মালিকানাধীন। বিমানটির গায়ে ভিটি-ইউপি জেড চিহ্নিত করা ছিল, যা উত্তরপ্রদেশ সরকারের প্রতীক। বিমানটির বয়সও ১০ বছরের বেশি। রক্ষণাবেক্ষণের অভাবের তত্ত্বেও তুলছেন কেউ কেউ। তবে, দুর্ঘটনার প্রকৃত কারণ এখনও জানা যায়নি। বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ব্ল্যাক বক্স উদ্ধার না হওয়ার পর্যন্ত দুর্ঘটনার কারণ জানা সম্ভব নয়। তবে, রক্ষণাবেক্ষণের অভাবের তত্ত্ব উড়িয়ে দেননি কেউই। কেউ কেউ আবার বিমাননবন্দর কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ তুলেছেন। সুত্রের খবর, বিমানের যন্ত্রাংশ ঠিক ছিল না, তা সারানোর পর এই প্রথম পরীক্ষামূলক ভাবে ওড়ানো হয় সেটিকে। পরীক্ষামূলকভাবে ওড়ানোর জন্য জনবহুল এলাকার রুট বেছে নেওয়া হল কেন, তা নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন অনেকে।

    LEAVE A REPLY