জিহাদি ও আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসী সংস্থাকে মদত পাকিস্তানের

খোঁজ-খবর,ওয়েবডেস্কঃ- তীব্র আর্থিক সংকটের মধ্যেও নিরলসভাবে নিজেদের অস্ত্রসম্ভার বাড়িয়ে চলেছে পাকিস্তান। তারা বিশেষ জোর দিচ্ছে পারমাণবিক ও মিসাইল বহনক্ষম অস্ত্রের উপর। এ কথা জানাল দেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। শুধু তাই নয়, সীমান্তপারের সন্ত্রাসে মদত দিয়ে পাকিস্তান নিরবচ্ছিন্নভাবে ভারতের উপর আক্রমণ শানানোর প্রক্রিয়া চালিয়ে যাচ্ছে বলেও দাবি করেছে মন্ত্রক।
সাম্প্রতিক বার্ষিক রিপোর্টে এমওডি জানিয়েছে, গত বছর অগস্টে ইমরান খান ক্ষমতায় আসার পর থেকে প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা ক্ষেত্রে নিজেদের অবস্থান আরও দৃঢ় করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পাকিস্তান। মন্ত্রকের রিপোর্ট বলছে, পরমাণু অস্ত্র সম্ভার বাড়িয়ে বর্তমানে ১৪০-১৫০ পারমাণবিক অস্ত্রের মালিক পাকিস্তান। যেখানে ভারতের এই সংখ্যাটা ১৩০-১৪০। ইউরেনিয়াম ও প্লুটোনিয়ামের উত্পারদন বৃদ্ধির যে ট্রেন্ড তাদের রয়েছে, তাতে ২০২৫ সালের মধ্যে তাদের পারমাণবিক অস্ত্রের সংখ্যা ২২০-২৫০ হয়ে যাবে বলে মনে করছে পারমাণবিক বিজ্ঞানীরা।
জিহাদি ও আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসী সংস্থার তকমা পাওয়া যে সংগঠনগুলি ভারতের বিরুদ্ধে আঘাত হানছে, তাদের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নিচ্ছে না পাকিস্তান।বরং তাদের মদত দেওয়া হচ্ছে।

শবরীমালায় নারী প্রবেশের আবেদন খারিজ

খোঁজ-খবর,ওয়েবডেস্কঃ- কিছু দিন আগেই এক বিতর্কে উত্তাল হয়েছিল সোশ্যাল দুনিয়া। আর সেই বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে ছিল শবরীমালা মন্দির। নেটিজেনের অনেকেই সে সময়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছিলেন যে, শবরীমালার মন্দিরে নারীর প্রবেশ নিয়ে পিটিশন জমা করেছিলেন আসলে মুসলিম মহিলারাই।
সুপ্রিম কোর্টের তরফে গত সোমবার মসজিদে নারীর প্রবেশের একটি আবেদন খারিজ করে দেওয়ার পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটিজেনের একাংশের শবরীমালায় নারীর প্রবেশ নিয়ে মুসলিম মহিলাদের পিটিশন জমা দেওয়ার দাবি জোরদার হয়। চিফ জাস্টিস রঞ্জন গগৈয়ের বেঞ্চের তরফে অখিল ভারত হিন্দু মহাসভার মুসলিম মহিলাদের মসজিদে প্রবেশ করতে দেওয়ার আবেদন খারিজ করে দেওয়া হয়েছিল। খোদ রঞ্জন গগৈ বলেছিলেন, ‘প্রথমে কোনও এক মুসলিম মহিলাকে এই বিষয় নিয়ে আওয়াজ তুলতে দিন। লড়াই করতে দিন। তারপরে আমরা বিষয়টা ভেবে দেখব।’

সাক্ষী-অজিতেশকে পুলিশি নিরাপত্তার নির্দেশ ইলাহাবাদ হাইকোর্টের

খোঁজ-খবর,ওয়েবডেস্কঃ- বাবার অমতে বিয়ে করায়, ভিডিয়ো বার্তায় প্রাণ সংশয়ের কথা তুলে ধরেছিলেন বিজেপি বিধায়কের মেয়ে। তা সত্ত্বেও ঠেকানো গেল না অপ্রীতিকর পরিস্থিতি।সোমবার, নতুন নাটকের সাক্ষী হল ইলাহাবাদ হাইকোর্ট। প্রাণের নিরাপত্তা চাইতে গত সোমবার আদালতে গিয়েছিলেন তাঁরা। কিন্তু, আদালত চত্বরেই অজ্ঞাতপরিচয় দুষ্কৃতীদের হাতে আক্রান্ত হন অজিতেশ। এক দল দুষ্কৃতী তাঁর উপর হামলা চালায়।ইলাহাবাদ হাইকোর্টের কাছে নিরাপত্তার দাবিতে আবেদন করেছিল দুজনে। এ দিন তারই শুনানি ছিল। আদালত চত্বরে আক্রান্ত হলেও, শেষ পর্যন্ত খালি হাতে ফিরতে হয়নি তাঁদের। ঘটনার কথা শুনে তীব্র ক্ষোভপ্রকাশ করেছে আদালত। যুগলকে নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য পুলিশকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে ইলাহাবাদ হাইকোর্ট। এমন নিন্দনীয় ঘটনার পরেও, বিজেপি বিধায়ক রাজেশ মিশ্রকে সমর্থন জানিয়ে বিতর্কিত টুইট করেছেন মধ্যপ্রদেশের বিরোধী দলনেতা গোপাল ভার্গব।

‘অজিতেশ-রাও মানুষ’,বাবাকে আর্জি মেয়ের

খোঁজ-খবর,ওয়েবডেস্কঃ- রাজেশ বরেলীর বিঠারি চেনপুরের বিধায়ক। তাঁর মেয়ে, ২৩ বছর বয়সি সাক্ষী তথাকথিত দলিত পরিবারের ছেলে, ২৯ বছর বয়সি অজিতেশকে বিয়ে করেছেন প্রয়াগরাজে এক মন্দিরে, গত বৃহস্পতিবার। তার পর প্রাণ ভয়ে পালিয়ে বেড়ানো। একটি ভিডিয়োয় দেখা যাচ্ছে, গাড়িতে সাক্ষী-অজিতেশ পাশাপাশি বসে। সাক্ষী বলেন, ‘‘নিজেদের ইচ্ছায় বিয়ে করেছি। আমার বাড়ির লোকজন সেটা মেনে নিতে পারছে না। গুন্ডা লাগিয়েছে। আমাদের রক্ষা করুন।’’ এর পরে অজিতেশ বলেন, ‘‘একটা হোটেলে উঠেছিলাম। প্রচুর লোক এসেছিল আমাদের মেরে ফেলবে বলে। (সাক্ষী পাশ থেকে জানান, তাদের মধ্যে তাঁর বাবার বন্ধুরা ছিল, এক জনের নাম রাজীব) ভাগ্য ভাল, সুযোগ বুঝে পালিয়ে যাই। আমি দলিত পরিবারের ছেলে। তাই নিজেদের ইজ্জত বাঁচাতে এই সব করছে।’’
অন্য একটি ভিডিয়োয় সাক্ষীকে আরও জোর দিয়ে বলতে দেখা গিয়েছে, ‘‘বাবা, আমি সত্যিই বিয়ে করেছি। ফ্যাশন করে সিঁদুর পরিনি। দয়া করে মেনে নাও। অজিতেশের বাড়ির লোকজনকে ভয় দেখানো বন্ধ করো।’’ সাক্ষী ভিডিয়োয় এ-ও বলে রেখেছেন, তাঁদের কিছু হলে দায়ী থাকবে তাঁর বাবা, ভাই ও রাজীব রাণা। অন্য বিজেপি নেতারা যে বাবাকে সাহায্য করছেন, তা-ও জানিয়েছেন তিনি। ভিডিয়োয় তাঁকে বলতে শোনা যায়, ‘‘বাবা, অজিতেশরাও মানুষ, জানোয়ার নয়। নিজের চিন্তাভাবনা বদলাও!’’ বাবার উদ্দেশে মেয়ের এই ভিডিয়ো বার্তা দেখে তোলপাড় হয় দেশ। সেইসঙ্গে, নিরাপদে জীবন কাটানোর এমন আর্তি আরও একবার স্পষ্ট করে দেয় জাতপাতের ভেদাভেদের মারাত্মক ছবিটা।
রাজেশ(তাঁর বিরুদ্ধে আগেই চারটি ফৌজদারি মামলা দায়ের করা রয়েছে) অবশ্য সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। সাংবাদিকদের কাছে তাঁর দাবি, ‘‘সব রাজনৈতিক চক্রান্ত। আমি বিয়ের বিরোধী নই। একটাই চিন্তা, ছেলেটি মেয়ের থেকে ৯ বছরেরও বেশি বড়। তেমন রোজগারও করে না। আমি চাই, ওরা বাড়ি ফিরে আসুক।’’

উচ্চবর্ণে বিয়ের অপরাধে খুন দলিত যুবক

খোঁজ-খবর,ওয়েবডেস্কঃ- উঁচু জাতের মেয়েকে বিয়ে করেছিলেন। ‘অপরাধ’ বলতে এটুকুই। নিজের প্রাণ দিয়ে তার মাশুল গুনতে হল গুজরাতের এক দলিত যুবককে। পুলিশের চোখের সামনে তাঁকে কুপিয়ে খুন করার অভিযোগ উঠল তাঁর শ্বশুরবাড়ির লোকেদের বিরুদ্ধে।সোমবার বিকেলে আমেদাবাদের মণ্ডল তালুকের বরমোর গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, নিহত ওই যুবকের নাম হরেশকুমার সোলাঙ্কি (৩৫)। কচ্ছের বাসিন্দা তিনি। মাস ছয়েক আগে বরমোর গ্রামে ঊর্মিলাবেন জালাকে বিয়ে করেন।
দলিত পরিবারে মেয়ের বিয়ে শুরু থেকেই মেনে নিতে পারেনি ঊর্মিলার পরিবার। বিয়ের দু’মাস পর হরেশের বাড়ি থেকে গর্ভবতী মেয়েকে বাড়ি নিয়ে আসেন তাঁরা। তার পর আর তাঁকে ফিরে যেতে দেননি বলে অভিযোগ। সেই থেকে বার বার চেষ্টা করেও স্ত্রীর নাগাল পাননি হরেশ। শেষমেশ উইমেন্স হেল্পলাইন ১৮১-র দ্বারস্থ হন তিনি।সেই মতো সোমবার বিকেলে এক মহিলা পুলিশ কনস্টেবল, গাড়ির চালক এবং এক কৌঁসুলিকে নিয়ে ঊর্মিলার বাপেরবাড়িতে হাজির হন হরেশ। আলাপ আলোচনার মাধ্যমে মিটমাট করে নিয়ে ঊর্মিলাকে স্বামীর বাড়িতে ফিরিয়ে আনাই উদ্দেশ্য ছিল তাঁদের।আচমকা হরেশ ওই বাড়িতে হাজির হলে পরিস্থিতি অন্য দিকে মোড় নিতে পারে ভেবে তাঁকে জিপে বসে থাকার পরামর্শ দেন ওই কৌঁসুলি। তিনি ওই পুলিশ কর্মীকে নিয়ে ঊর্মিলার পরিবারের সঙ্গে কথা বলেন। এক মাসের মধ্যে মেয়েকে শ্বশুরবাড়ির ফেরত পাঠাবেন বলে সেখানে তাঁদের প্রতিশ্রুতি দেন ঊর্মিলার বাবা দশরথসিংহ জালা। কিন্তু তাঁদের এগিয়ে দিতে এসে গাড়িতে হরেশকে দেখে তাঁর উপর ঝাঁপিয়ে পড়েন উর্মিলার পরিবারের সকলে। তাঁকে মারধর শুরু করা হয়। তলোয়ার, ছুরি দিয়ে কোপানোও হয় বলে অভিযোগ। তাতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় হরেশের। মারধর করা হয় ওই মহিলা পুলিশ কর্মীকেও। ভাঙচুর চালানো হয় গাড়িটিতে।উইমেন্স হেল্পলাইনের কাউন্সেলিং অফিসার ভাবনা ভগোরা পরে বিষয়টি নিয়ে মণ্ডল থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। তার ভিত্তিতে দশরথসিংহ জালা, ইন্দ্রজিৎ জালা, হাসমুখসিংহ জালা, জয়দীপসিংহ জালা, অজয়সিংহ জালা-সহ পরিবারের আরও তিন সদস্যের বিরুদ্ধে তফসিলি জাতি এবং উপজাতির বিরুদ্ধে নৃশংসতা প্রতিরোধ আইনে মামলা দায়ের হয়েছে। তবে অভিযুক্তরা সকলেই পলাতক। তাদের খুঁজে বার করতে তল্লাশি অভিযান শুরু হয়েছে।

অবনতি হচ্ছে অসমের বন্যা পরিস্থিতির

খোঁজ-খবর,ওয়েবডেস্কঃ- অসমে বন্যা পরিস্থিতি ক্রমেই শোচনীয় হচ্ছে। রাজ্যের ২৮টি জেলার ৩১৩৮টি গ্রাম বানভাসি। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তের সংখ্যা প্রায় ২৬ লক্ষ ৪৬ হাজার। গত ২৪ ঘণ্টায় আরও চারজনের মৃত্যু হয়েছে।এখন পর্যন্ত অসমে বন্যা ও ধসে মারা গিয়েছেন ১১ জন।গুয়াহাটিতে ব্রহ্মপুত্রের জল বেড়ে পানবাজার, ফ্যান্সিবাজার এলাকায় মূল রাস্তা ছোঁয়ার উপক্রম হয়েছে। ব্রহ্মপুত্রের পারে আজান পীর উদ্যান জলের তলায়। বাক্সা জেলায় বেকি নদীর বন্যায় আটকে পড়া বালিপুর চরের গ্রামবাসীদের উদ্ধার করতে সেনার সাহায্য নেওয়া হয়।
মিজোরামে খাওতলাং তুইপুই (কর্ণফুলি নদী) নদীর বন্যার জেরে লাবুং এলাকা থেকে ২০০ পরিবারকে সরান হয়েছে। রাজ্যের বিভিন্ন স্থানে নামছে ধস। অনেক সড়ক বন্ধ। অরুণাচলের পূর্ব সিয়াং জেলায় সিয়াং নদী বিপদসীমার উপরে বইছে। সিকু নদীর বন্যায় সেতু ভেসেছে। কাদাং, গপোক, সিসার, তারো তামাক, সুবনসিরি, দিবাং, জোনা, ডিক্রং নদীগুলি ক্রমেই বিপদসীমা ছাড়াচ্ছে। পাঁচ দিন আগে পশ্চিম কামেং জেলায় নাগমন্দিরের কাছে হড়পা বানে রাস্তা ও সেতু ভেসে অনেক গাড়ি আটকে ছিল। শনিবার সেসা ও জিরোর মধ্যে আটকে পড়া ৪৫ জন আরোহীকে উদ্ধার করা হয়েছে। কিন্তু ২১টি গাড়ি ও একটি বাস সেখানেই পড়ে আছে। রাস্তা ফের তৈরি না হলে সেগুলি উদ্ধার করা যাবে না। লোহিত নদীর পাগলাম বাঁধ ভেঙে অনেক গ্রাম জলমগ্ন। চিকু নদীরও বাঁধ ভেঙেছে। বিভিন্ন সড়কে ধস পরিষ্কার করতে রাতদিন কাজ করছে বিআরও এবং বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী। ধসের জেরে চিন সীমান্তবর্তী এলাকাগুলির সঙ্গে সেনাবাহিনীর যোগাযোগও বিচ্ছিন্ন হয়েছে।
রাজ্যের পরিস্থিতি সামলাতে ৮৪ জন ডুবুরি-সহ তিন কোম্পানি এসডিআরএফ মোতায়েন আছে। এনডিআরএফ পাঠানো হয়েছে শিবসাগর, তিনসুকিয়া, শোণিতপুর, ধেমাজি, শিলচর, যোরহাট, বঙাইগাঁওতে। কাজিরাঙা, ওরাং, পবিতরার অরণ্যের সিংহভাগই জলের তলায়। এই সুযোগে যাতে চোরাশিকারিরা সক্রিয় না হতে পারে সে জন্য কড়া নজর রাখা হচ্ছে।পূর্ব ভারতের জনপ্রিয় কাজিরাঙা অভয়ারণ্য লুপ্তপ্রায় এক শৃঙ্গ গণ্ডারের জন্য প্রসিদ্ধ। এছাড়া বাঘ, হরিণ, হাতি তো রয়েছেই। বিপন্ন পশুদের উদ্ধারকাজে এখন দিনরাত ব্যস্ত থাকছেন কাজিরাঙা বন বিভাগের কর্মীরা। জরুরি অবস্থা জারি করে চলছে পশুদের উদ্ধারকাজ ও চিকিত্সাগ। বন্যায় শুধুমাত্র ৫ জেলার কোনও ক্ষতি হয়নি।

পুরুষ শরীর থেকে বাদ পড়লো একাধিক মহিলা যৌনাঙ্গ

খোঁজ-খবর,ওয়েবডেস্কঃ- বন্ধ্যাত্বের সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। তাই চিকিৎসকের কাছে গিয়েছিলেন ২৯ বছরের এক যুবক। সেখানে গিয়ে তিনি জানতে পারলেন, তাঁর দেহে রয়েছে একাধিক মহিলা জননাঙ্গ! তার পরই তাঁকে অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দেন ওই চিকিৎসক। গত মাসে মুম্বইয়ের জেজে হাসপাতালে করা হয় তাঁরঅপারেশন। এখন তিনি সুস্থ আছেন বলে জানিয়েছেন মুম্বইয়ের ওই সরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।ওই হাসপাতালের ইউরোলজি বিভাগের প্রধান চিকিৎসক ভেঙ্কট গিতে জানিয়েছেন, এই রোগ খুবই বিরল। তাঁর দাবি, এখনও অবধি এমন ২০০টি ঘটনা দেখা গিয়েছে।চিকিৎসক গিতে জানিয়েছেন, এমআরআই স্ক্যানিংয়ের মাধ্যমে ওই ব্যক্তির দেহে মহিলা জননাঙ্গের উপস্থিতি ধরা পড়ে। ওই ব্যক্তির দেহে জরায়ু, ফ্যালোপিয়ান টিউব, সারভিক্স ও আংশিক যোনি ছিল। গত ২৬ জুন অপারেশনের মাধ্যমে সেই সব অঙ্গ বাদ দেওয়া হয়েছে। যদিও ওই ব্যক্তি সন্তানের বাবা হতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

আমেরিকা সফরে গিয়ে প্রবাসীদের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করবেন প্রধানমন্ত্রী

খোঁজ-খবর,ওয়েবডেস্কঃ- সেপ্টেম্বর মাসের তৃতীয় সপ্তাহে নিউ ইয়র্ক এবং হাউসটন সফরে যাবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। রাষ্ট্রপুঞ্জের সাধারণ সভায় যোগ দেওয়ার পাশাপাশি তিনি আলাদা করে বৈঠক করবেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে। এছাড়া প্রবাসী ভারতীদের সঙ্গেও দেখা করবেন মোদী।

২০ থেকে ২৩ সেপ্টেম্বরের মধ্যে নিউ ইয়র্কে আয়োজিত রাষ্ট্রপুঞ্জের সাধারণ সভায় যোগ দেবেন নরেন্দ্র মোদী। এখান থেকে একদিনের জন্য হাউসটন যাবেন তিনি। টেক্সাসে ইন্দো-মার্কিনিদের যে বিশাল সম্প্রদায়, তাঁদের সঙ্গে দেখা করবেন প্রধানমন্ত্রী। মোদী ওয়াশিংটন যাবেন কিনা, তা এখনও ঠিক নেই। তবে এখনও পর্যন্ত মনে করা হচ্ছে যে রাষ্ট্রপুঞ্জের বৈঠকের সাইডলাইনে তিনি ট্রাম্প ও অন্য রাষ্ট্রনেতাদের সঙ্গে কথা বলতে পারেন।

এর আগে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীরা আমেরিকা সফরে গিয়ে তাঁদের গতিবিধি নিউ-ইয়র্ক ও ওয়াশিংটন ডিসির মধ্যেই আটকে রাখতেন।

বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি?

খোঁজখবর ওয়েব ডেস্ক ঃ জন্মদিনে শুভেচ্ছার ঢল চার দিকে। আর বিজেপি মুখিয়ে আছে কবে তিনি অবসর নেবেন আর যোগ দেবেন বিজেপিতে।

বিশ্বকাপে মহেন্দ্র সিংহ ধোনির মন্থর ব্যাটিং, আর তার অবসরের জল্পনা বেশ কয়েক দিন ধরেই চলছে। অবসরের জল্পনা আরও উস্কে দিয়েছে আইসিসির সা¤প্রতিক একটি টুইট। যদিও ধোনি জানিয়েছেন, তিনি জানেন না কবে অবসর নেবেন।কিন্তু বিজেপি নিশ্চিত, বিশ্বকাপের পরই ক্রিকেট দুনিয়া থেকে অবসর নেবেন ধোনি। তারপরই যোগ দেবেন বিজেপিতে।
ঝাড়খণ্ডে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের ‘মুখ’ হবেন। হরিয়ানার গায়িকা ও নৃত্যশিল্পী স্বপ্না চৌধরীও আনুষ্ঠানিকভাবে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। ভোটের আগে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বঢরার সঙ্গে দেখা করেছিলেন স্বপ্না। এরপরই কংগ্রেস দাবি করে, তিনি কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন। কিন্তু ক’দিন পরই মনোজ তিওয়ারির সঙ্গেই তাকে প্রচার করতে দেখা যায়। স্বপ্নাকে এবার পাকাপাকিভাবে বিজেপিতে নিয়ে এলেন মনোজ।

ধোনি প্রসঙ্গে বিজেপির এক নেতা জানান, সদ্য হয়ে যাওয়া লোকসভা নির্বাচনের আগে থেকেই তার সঙ্গে যোগাযোগ রয়েছে বিজেপি নেতাদের। কিন্তু ধোনি বিশ্বকাপ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে চেয়েছিলেন। ঝাড়খণ্ডের রাঁচীর বাসিন্দা। সমাজের সব স্তরেই তার জনপ্রিয়তা রয়েছে। অবসরের পর কখন তিনি বিজেপিতে যোগ দেবেন, দলে তার ভূমিকা কী হবে, সে সব আলোচনা করে স্থির হবে।

দলের সম্পর্ক-অভিযানের সূত্রে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ গত বছরই পীয‚ষ গয়ালকে নিয়ে ধোনির বাড়িতে গিয়েছিলেন। সঙ্গে ছিলেন বিজেপি দিল্লি শাখার সভাপতি মনোজ তিওয়ারি। বিজেপি সূত্রের মতে, মনোজ তিওয়ারির সঙ্গেই ধোনির নিয়মিত যোগাযোগ রয়েছে।

ধোনির আগে ভারতীয় ক্রিকেট দলের আরেক প্রাক্তন ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীরও লোকসভার আগে গত ডিসেম্বরে ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়ে বিজেপিতে যোগ দেন। তাকে দলে আনার ব্যাপারে অরুণ জেটলির বড় ভূমিকা ছিল। গম্ভীরকে প‚র্ব দিল্লি কেন্দ্রের প্রার্থী করা হয়। রেকর্ড ভোটে জিতে এখন তিনি লোকসভার সাংসদ।

ধোনি প্রসঙ্গে বিজেপির এক নেতার বক্তব্য, “ঝাড়খণ্ডের বিধানসভা ভোটে ধোনি প্রার্থী হবেন, নাকি তাকে শুধু প্রচারেই ব্যবহার করা হবে, সেটি এখনও স্থির হয়নি।

ঝাড়খণ্ডে বিজেপির পরিস্থিতি এখন খুব একটা অনুক‚ল নয় বলেই দলের নেতারা বলছেন। মুখ্যমন্ত্রী রঘুবর দাসের সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোভ আছে মানুষের। বিশেষ করে বেকার যুবক, আদিবাসীদের। সম্প্রতি বিজেপি যে সদস্য সংগ্রহ অভিযান শুরু করেছে, তার মাধ্যমে আরও ২৫ লাখ নতুন ব্যক্তিকে যুক্ত করার লক্ষ্য বেধে দিয়েছেন অমিত শাহ। সম্প্রতি সে রাজ্যের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে অমিত শাহ রাজ্যের ৮১টি আসনের মধ্যে কমপক্ষে ৬৫টিতে জেতার লক্ষ্য নিয়ে এগোতে বলেছেন। ঘরে ঘরে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রীও সদস্য সংগ্রহ অভিযান শুরু করেছেন।

এমন এক পরিস্থিতিতে ধোনির মতো জনপ্রিয় খেলোয়াড় বিজেপিতে এলে তা ‘সম্পদ’ বলেই মনে করছেন দলের নেতারা। ঝাড়খণ্ডের রাজনৈতিক শিবিরে এই নিয়ে আলোচনাও শুরু হয়েছে। যার পর কংগ্রেসের মুখপাত্র রণদীপ সিংহ সুরজেওয়ালাও ধোনির জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। টুইট করেছেন, নিজের ট্রেডমার্ক ‘হেলিকপ্টার শট’।

উচ্চশিক্ষার স্বার্থে বাজেটে নতুন শিক্ষা নীতি প্রয়োগ

খোঁজ-খবর,ওয়েবডেস্কঃ- উচ্চশিক্ষার স্বার্থে নতুন শিক্ষা নীতি প্রয়োগ করতে চলেছে নরেন্দ্র মোদী সরকার। শুক্রবার কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ করার সময় ভাষণে সেই ঘোষণা করলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। অর্থমন্ত্রী জানিয়েছেন, গবেষণাক্ষেত্রে বিশেষ জোর দিতে চলেছে প্রশাসন এবং সেই কারণে বিভিন্ন মন্ত্রক থেকে তহবিল জোগাড় করতে একটি জাতীয় গবেষণা সংগঠন তৈরি করার উদ্যোগ নেওয়া হবে। এদিন দেশের বিশ্ব মানের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলির জন্য ৪০০ কোটি টাকা বরাদ্দের কথা ঘোষণা করেন অর্থমন্ত্রী। পাশাপাশি, ক্রীড়াশিক্ষায় উন্নতি সাধনের উদ্দেশে খেলো ইন্ডিয়া প্রকল্পের অধীনে জাতীয় ক্রীড়াশিক্ষা পর্ষদ গঠন নিয়ে সরকারের পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন নির্মলা সীতারমণ।কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে ১ কোটি নবীনকে অত্যাধুনিক কারিগরি প্রশিক্ষণ দিতে কৌশল বিকাশ প্রকল্পের কথাও এদিন উল্লেখ করেন অর্থমন্ত্রী। শুধু তাই নয়, ভাষণে নতুন প্রজন্মের প্রযুক্তিগত দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে রোবোটিক্স, আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ও ডেটা সায়েন্সের মতো বিষয়ে জোর দিতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার।