৫ বছরের এক নাবালিকাকে প্রথমে ধর্ষন বাধা দিলে তাকে শ্বাসরোধ করে খুন

নিজস্ব প্রতিনিধি, দক্ষিণ ২৪ পরগণাঃ ৫ বছরের এক নাবালিকাকে প্রথমে ধর্ষন বাধা দিলে তাকে শ্বাসরোধ করে খুন ৷ ঘটনাটি ঘটেছে নরেন্দ্রপুর থানা এলাকার খেয়াদহে ৷ খুনের পর জঙ্গলে ফেলে পলাতক অভিযুক্ত ৷ ঘটনার তদন্তে নেমে শিয়ালদহ থেকে গ্রেপ্তার করা হয় অভিযুক্ত আজগর আলিকে ৷ আজ তাকে বারুইপুর আদালতে তোলা হয়েছে ৷ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিজেদের হেফাজতে নেবে পুলিশ ৷ গত সোমবার থেকে নিখোঁজ ছিল দক্ষিণ ২৪ পরগণার নরেন্দ্রপুর থানার অন্তর্গত খেয়াদহ এলাকার এক নাবালিকা শিশু। পরিবার ও স্থানীয় মানুষদের অভিযোগ ছিল স্থানীয় আজগর আলি(৪০) নামের এক যুবক ঐ শিশুকে অপহরণ করেছে। ঘটনার পর থেকেই পলাতক ছিল আজগর ৷ সে কোনও ফোনও ব্যবহার করত না ৷ ফলে কার সন্ধান পেতে বেগ পেতে হয় পুলিশকে ৷ বিভিন্ন রেল ষ্টেশনে তল্লাশি শুরু করে পুলিশ ৷ কারণ আজগর মাঝে মাঝেই ষ্টেশনে রাত কাটাত ৷ শনিবার রাতে শিয়ালদহ স্টেশান থেকে অভিযুক্ত আজগর আলিকে গ্রেফতার করে বারুইপুর থানার পুলিশ। পুলিশি জেরায় আজগর স্বীকার করে ঐ নাবালিকাকে পিয়ারা দেওয়ার লোভ দেখিয়ে একটি ফাঁকা জায়গায় নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করেছে সে। তারপর শ্বাসরোধ করে খুন করে দেহ স্থানীয় ঝোপের মধ্যে ফেলে দিয়েছে।